হাসপাতাল-ক্লিনিক চিকিৎসা না দিলে লাইসেন্স বাতিল : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বেসরকারি হাসপাতাল বা ক্লিনিকে সাধারণ রোগে মানুষের চিকিৎসা না পাওয়ার বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

তিনি বলেন, বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। মানুষের এই বিপদের সময় তারা (প্রাইভেট চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান) যদি চিকিৎসা না করে, হাতগুটিয়ে বসে থাকে, তাহলে সরকারও তাদের লাইসেন্স বাতিলসহ কঠোর পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবে।

শনিবার (০৪ এপ্রিল) বিকালে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের ‘ডেডিকেটেড করোনা বেড’ পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনা ভাইরাস মোকাবিলা করতে হলে সম্মিলিত প্রচেষ্টার বিকল্প নেই। দেশে আজও ৯ জন আক্রান্ত হয়েছে এবং ২ জন মারা গেছে। গোটা বিশ্বে করোনা ভাইরাস কঠিন মূর্তি ধারণ করছে। কাজেই সামনে সতর্ক না হয়ে আর উপায় নেই। প্রত্যেকেরই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। এখন থেকে সামনের কিছুদিন ঘর থেকে খুব জরুরি না হলে বাইরে বের হওয়াই উচিত হবে না। আর বাইরে কোনো প্রয়োজনে বের হলেই মুখে মাস্ক পরে বের হতে হবে।

জাহিদ মালেক বলেন, বারবার অনুরোধ করার পরও দেখা যাচ্ছে মানুষ জনসমাগম পরিহার করতে চাচ্ছে না। জুমার নামাজে মসজিদ ভর্তি হয়েও রাস্তা পর্যন্ত লোক দাঁড়িয়ে যাচ্ছে। এই মুহূর্তে এটি খুবই অনাকাঙ্ক্ষিত ব্যাপার। সৌদি আরব, কুয়েত, ইরানের মতো মুসলিম দেশ যেখানে এই সময়ে মসজিদে গিয়ে নামাজে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে, সেখানে বাংলাদেশে এটি কোনোভাবেই মানছে না। এভাবে নিয়ম অগ্রাহ্য করলে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কঠিন হবে।

এ উপস্থিত ছিলেন সময় স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিব আলী নূর প্রমুখ।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *