সামর্থ্য অনুযায়ী টিউশন ফি দিতে শিক্ষামন্ত্রীর প্রস্তাব

সামর্থ্য অনুযায়ী টিউশন ফি দিতে শিক্ষামন্ত্রীর প্রস্তাব

করোনা পরিস্থিতির মধ্যে টিউশন ফি আদায়ে অভিভাবকদের ওপর চাপ না দিতে বলা হয়েছে। অভিভাবকরা সামর্থ্য অনুযায়ী যতটুকু পরিশোধ করতে পারবেন তা নিয়ে প্রতিষ্ঠান চালিয়ে যেতে বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

শনিবার (২৭ জুন) এডুকেশন রিপোর্টার অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ (ইরাব) আয়োজিত অনলাইন সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এসব কথা বলেন। ‘করোনায় শিক্ষার চ্যালেঞ্জ এবং উত্তরণে করণীয়’ শীর্ষক এই ভার্চুয়াল সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি মোসতাক আহমেদ।

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধুরী, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. মনজুর হোসেন এবং ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের সহকারী অধ্যাপক ড. ফারহানা খানম।

দীপু মনি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতির মধ্যে অনেকে আর্থিক, মানসিক ও শারীরিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন। এ অবস্থায় অনেকের পক্ষে তার সন্তানের টিউশন ফি পরিশোধ করতে কষ্ট হচ্ছে। এ অবস্থায় যেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামর্থ্য রয়েছে তাদের আপাতত টিউশন ফি আদায় করা থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। যেসব প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব সক্ষমতা নেই তাদের যতটা পারবে ছাড় দিয়ে অভিভাকদের সামর্থ্য অনুযায়ী ফি আদায় করে প্রতিষ্ঠান চালিয়ে রাখতে বলা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমানে সংসদ টেলিভিশন, অনলাইন ক্লাস শুরু করা হলেও ৯০ শতাংশ শিক্ষার্থী নানা মাধ্যমে এ সুবিধার আওতায় এসেছে, ১০ শতাংশ বাইরে রয়েছে। তাদের কীভাবে এ সুবিধার আওতায় আনা সম্ভব হয় সেটি নিয়ে আমরা কাজ করছি।’

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইরাব সাধারণ সম্পাদক নিজামুল হক। সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাব্বির নেওয়াজের সঞ্চালনায় এতে ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন ইরাব কোষাধ্যক্ষ শরিফুল আলম সুমন।

আলোচনায় অংশ নেন ইরাব যুগ্ম সম্পাদক ফারুক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক এম এম জসিম, দপ্তর সম্পাদক এম এইচ রবিন, ডেইলি স্টারের সিনিয়র রিপোর্টার মহিউদ্দিন জুয়েল, ঢাকাটাইমসের রিপোর্টার তানিয়া আক্তার প্রমুখ।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *