বঙ্গবন্ধু দেশ পরিচালনায় ছিলেন একজন দক্ষ রাষ্ট্র নায়কঃ মুক্তিযোদ্ধামন্ত্রী

বঙ্গবন্ধু দেশ পরিচালনায় ছিলেন একজন দক্ষ রাষ্ট্র নায়কঃ মুক্তিযোদ্ধামন্ত্রী

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শুধু একজন ব্যক্তি নন, তিনি ছিলেন একটি আদর্শ। তাই শুধু বঙ্গবন্ধুকে নয়, একটি কুচক্রি মহল তার আদর্শকে ধ্বংস করতে চেয়েছিল। আর সেই আদর্শকে ধ্বংস করতে এদেশীয় ষড়যন্ত্রকারীরা বিদেশি কুচক্রিদের সহায়তায় ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট তাকে সপরিবারে হত্যা করে। ’

শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় মেহেরপুর জেলা প্রশাসন আয়োজিত “মুজিববর্ষে শত ঘণ্টা মুজিবচর্চা” ও “আমাদের প্রিয় মুজিব ভাই” শীর্ষক ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় মুখ্য আলোচক ছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ও মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক ফরহাদ হোসেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোজাম্মেল হক আরো বলেন, ‘বাংলাদেশের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতার ডাক দেন। ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেনি। তারা হত্যা করতে চেয়েছিল তার আদর্শকে। তার আদর্শকে হত্যা করে এদেশকে মিনি পাকিস্তান, সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র বানাতে চেয়েছিল। তারা জানতো, বঙ্গবন্ধুর রক্তের একটি বিন্দুও বেঁচে থাকলে, সেই রক্ত দেশে এক সময় জেগে উঠবে। এজন্য ঘাতকরা শিশু রাসেলকেও নির্মমভাবে হত্যা করেছিল। ’

‘বঙ্গবন্ধু ১৪ বার ফাঁসির কাষ্ঠে দাঁড়িয়েও অন্যায়ের সঙ্গে আপোষ করেননি। তাই শুধু বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ১৫ আগস্ট শোক পালন আর আলোচনা সভা করলেই হবে না, তার সেই আদর্শকে ধারণ করে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে। বঙ্গবন্ধু শুধু আন্দোলনেই নয়, দেশ পরিচালনায়ও ছিলেন একজন দক্ষ রাষ্ট্র নায়ক। ঘাতকের বুলেট বঙ্গবন্ধুর দেহকে ছিন্ন করতে পারলেও তার আদর্শকে হত্যা করতে পারেনি,’ যোগ করেন মন্ত্রী।

ইউনেস্কো বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণকে সেরা ভাষণ হিসেবে স্বীকৃতী দিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘তার সেই ভাষণে ঘুমন্ত জাতিকে সশস্ত্র জাতিতে পরিণত করেছিল। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে বর্তমান সরকার দেশ পরিচালনা করছে। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাও এদেশের মানুষের কল্যাণে কাজ করছেন। এ সরকার গৃহহীনদের ঘর দিচ্ছে, বৃদ্ধ, প্রতিবন্ধীসহ সব মানুষের খাদ্য, বাসস্থান শিক্ষা, চিকিৎসাসহ সব ধরনের মৌলিক চাহিদা মেটানোর ব্যবস্থা করছে। ’

জুমের মাধ্যমে ভার্চ্যুয়াল এ সভায় আরও বক্তব্য দেন- মেহেরপুর-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মকবুল হোসেন, পাবলিক প্রসিকিউটর পল্লব ভট্টাচার্য, মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট ইব্রাহিম শাহিন, প্রফেসর হাসানুজ্জামান মালেকসহ অনেকে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. তৌহিকুর রহমানের সঞ্চালনায় মেহেরপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এ সভায় অন্যান্যের মধ্যে চুয়াডাঙ্গা জেলা ও দায়রা জজ রবিউল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তুষার কান্তি পালসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *