বঙ্গবন্ধুর জন্মক্ষণে টিভিতে ২ ঘণ্টার অনুষ্ঠান-আতশবাজি

বঙ্গবন্ধুর জন্মক্ষণে টিভিতে ২ ঘণ্টার অনুষ্ঠান-আতশবাজি

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ-

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের পাশাপাশি সারাদেশে রাত ৮টায় আতশবাজির মধ্য দিয়ে শুরু হবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান। পরে দেশের সব টেলিভিশন, বিদেশি টেলিভিশন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একযোগে প্রচারিত হবে ‘মুক্তির মহানায়ক’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠান।

দুই ঘণ্টাব্যাপী ওই অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী, বিদেশি কয়েকটি দেশের রাষ্ট্রপ্রধানের ভাষণ থাকবে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কণ্ঠে একটি কবিতাও শোনা যাবে ওই অনুষ্ঠানে।

সোমবার (১৬ মার্চ) রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্মশতবার্ষিকী বাস্তবায়ন জাতীয় কমিটির প্রধান সমন্বয়ক কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী এসব তথ্য জানান।

প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর কর্মসূচি থেকে জানা যায়, সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের প্রতিনিধি দল টুঙ্গীপাড়ায় চিরনিদ্রায় শায়িত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন এবং দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে অংশগ্রহণ করবেন। এতে প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ অংশ নেবেন।

আওয়ামী লীগের কর্মসূচি হলো সকাল সাড়ে ৬টায় বঙ্গবন্ধু ভবন, কেন্দ্রীয় কার্যালয় এবং সারাদেশে সংগঠনের সকল কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করবে আওয়ামী লীগ। মসজিদ, মন্দির, প্যাগোডা, গির্জাসহ সকল ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে দেশব্যাপী বিশেষ প্রার্থনা কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাদ জোহর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদসহ দেশের সকল মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

সকাল ৮টায় তেজগাঁও গির্জায়, সকাল ৯টায় মিরপুর ব্যাপ্টিস্ট চার্চ (৩/৭-এ সেনপাড়া, পবর্তা, মিরপুর-১০)-এ খ্রিস্টান সম্প্রদায়, সকাল ১০টায় রাজধানীর মেরুল বাড্ডাস্থ আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারে বৌদ্ধ সম্প্রদায় এবং সকাল সাড়ে ১১টায় ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে হিন্দু সম্প্রদায় প্রার্থনা সভার আয়োজন করেছে। দুপুর ১২টায় আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক উপকমিটির উদ্যোগে আজিমপুর এতিমখানা প্রাঙ্গণে অসহায়, দুস্থ ও এতিমদের মাঝে খাবার, বস্ত্র ও করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ব্যবহার্য সামগ্রী বিতরণ। দুপুর ১টায় ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বনানী করাইল বস্তিতে এবং ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এতিম ও দুস্থ্ মানুষের মাঝে খাবার ও মিষ্টি বিতরণ।

জন্মশতবার্ষিকী বাস্তবায়ন জাতীয় কমিটির প্রধান সমন্বয়ক কামাল আবদুল নাসের জানান, মুজিববর্ষের মূল অনুষ্ঠান প্যারেড গ্রাউন্ডে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সেখানে কোনো অনুষ্ঠান হবে না। আমরা টিভি প্রোগ্রাম তৈরি করেছি। তাতে আতশবাজি ও লেজার শো থাকবে। বঙ্গবন্ধু রাত ৮টার দিকে জন্ম নিয়েছিলেন। আমরা সেই ক্ষণে উৎসব করতে চাই।

তিনি বলেন, রাত ৮টায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আতশবাজির মধ্য দিয়ে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান শুরু হবে। টেলিভিশনে তা প্রচার হবে। আতশবাজি শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে টেলিভিশনগুলোতে জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হবে। ওই অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর কণ্ঠে একটি কবিতা শোনা যাবে, যেটি লিখেছেন শেখ রেহানা। ওই অনুষ্ঠানে বিভিন্ন রাষ্ট্র ও সংস্থার প্রধানদের বক্তব্য প্রচারিত হবে।

কামাল আবদুল নাসের বলেন, মুজিববর্ষের মূল অনুষ্ঠান টেলিভিশনেই প্রচারিত হবে। টুঙ্গিপাড়ায় প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে শিশু সমাবেশ হবে না। আতশবাজি করা হবে জনাসমাগম এড়িয়ে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *