পুলিশে সন্তুষ্ট প্রধানমন্ত্রী

পুলিশে সন্তুষ্ট প্রধানমন্ত্রী

বাংলাদেশ পুলিশের কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রতিটি ক্ষেত্রে দক্ষতার পরিচয় দিচ্ছে পুলিশ বাহিনী।

রবিবার (৫ জানুয়ারি) সকালে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স মাঠে সুশৃঙ্খল ও নয়নাভিরাম বার্ষিক পুলিশ প্যারেড পরিদর্শন শেষে এ কথা বলেন তিনি। এর আগে পুলিশ সপ্তাহের উদ্বোধন ও বার্ষিক পুলিশ প্যারেড পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী।

স্বাধীনতার ইতিহাসের সঙ্গে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সের নাম আজীবন জড়িত থাকবে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, পুলিশ বাহিনী প্রত্যেকটি ক্ষেত্রে সাহসিকতা ও দক্ষতার পরিচয় দিচ্ছে। বিশেষ করে সড়ক নিরাপত্তায় বিশেষ ভূমিকা পালন করছে। পথচারীসহ সকলের চলাচলে ট্রাফিক পুলিশ অক্লান্ত পরিশ্রম করছে।

তিনি বলেন, জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এ ফোন করে তাৎক্ষণিক সুবিধা পাচ্ছেন জনগণ। ফায়ার সার্ভিস কর্মীরাও বিশেষ ভূমিকা রাখছেন।

বিএনপি-জামায়াতের নাশকতায় পুলিশের ২৯ জন সদস্য নিহত হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের প্রত্যেকটি পুলিশ সদস্য এ সময় নিজের জীবনবাজি রেখে এসব ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড প্রতিহত করেছে। আমি পুলিশকে ধন্যবাদ জানাই।

তিনি আরও বলেন, যারা দেশের স্বাধীনতা চায়নি তারাই ২১ বছর সরকারে ছিল। এ সময় তারা দেশের উন্নয়ন করতে পারেনি। আওয়ামী লীগ সরকারে এসে দেশকে উন্নত ও সমৃদ্ধ করতে কাজ শুরু করে। এ সময় পুলিশের প্রত্যেকটি কাজে সাহসিকতা ও দক্ষতা দেখেছি।

বিএনপি জামায়াতের জ্বালাও পোড়াওয়ের কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, পুলিশ বাহিনী তাদের জীবনবাজী রেখে দেশের মানুষ ও জাতীয় সম্পদ রক্ষা করেছে। এজন্য আমি পুলিশ বাহিনীকে আন্তরিক ধন্যবাদ এবং অভিনন্দন জানাই।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী সারা দেশের বিভিন্ন পুলিশ ইউনিটের সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত বিভিন্ন কন্টিনজেন্ট এবং পতাকাবাহী দলের নয়নাভিরাম প্যারেড পরিদর্শন ও অভিবাদন গ্রহণ করেন।

উৎসাহ-উদ্দীপনা ও আনন্দমুখর পরিবেশের মধ্যদিয়ে ছয় দিনব্যাপী পুলিশ সপ্তাহ পালন করার জন্য আগেই সব ধরনের প্রস্তুতি শেষ হয়। এবারের পুলিশ সপ্তাহের মূল প্রতিপাদ্য- ‘মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার’। প্যারেড অধিনায়ক হিসেবে নেতৃত্ব দেন পুলিশ সদর দপ্তরের পুলিশ সুপার (এসপি) মো. ছালেহ উদ্দিন। তার নেতৃত্বে প্যারেডে অংশ নেন সহস্রাধিক পুলিশ সদস্য।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *