করোনাকালে অর্থনীতি সচল রাখায় বাংলাদেশের প্রশংসা স্পেনের রাষ্ট্রদূতের

করোনাকালে অর্থনীতি সচল রাখায় বাংলাদেশের প্রশংসা স্পেনের রাষ্ট্রদূতের

করোনাকালে বাংলাদেশ সরকারের অর্থনীতির চাকা সচল রাখার প্রচেষ্টার প্রশংসা করেছেন ঢাকায় নিযুক্ত স্পেনের রাষ্ট্রদূত ফ্রান্সিসকো দি অসিস বেনেতিজ সালাস।

বুধবার (২ ডিসেম্বর) জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের সময় এ প্রশংসা করেন তিনি।

জাতীয় সংসদ ভবনে সাক্ষাৎকালে তারা উভয় দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উন্নয়ন, সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপ গঠন, জলবায়ু পরিবর্তন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়ন, করোনাকালে সামগ্রিক বৈশ্বিক পরিস্থিতি, বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ন প্রভৃতি নিয়ে আলোচনা করেন।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, করেনাকালে উদ্ভূত ‘নিউ-নরমাল’ বিশ্বে বিভিন্ন দেশের পারস্পরিক সহায়তা ও সমন্বয় খুবই জরুরি। নিজেদের সুরক্ষিত রেখে শিক্ষা কার্যক্রম চলমান রাখা, কর্মহীনতার কারণে কর্মহীনদের সহায়তাকরণ ইত্যাদি বিষয়ে করণীয় সম্পর্কে বিভিন্ন দেশের মধ্যে অভিজ্ঞতা বিনিময় দরকার।

এ সময় রাষ্ট্রদূত ফ্রান্সিসকো দি অসিস বেনেতিজ সালাস করোনাকালে বাংলাদেশ সরকারের অর্থনীতির চাকা সচল রাখার প্রচেষ্টার প্রশংসা করেন।

বাংলাদেশ ও স্পেনের বন্ধুত্ব সুদীর্ঘকালের উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত ফ্রান্সিসকো দি অসিস বেনেতিজ সালাস বলেন, উভয় দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উন্নয়নে সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপ গঠন ও সংসদীয় কার্যক্রমে পারস্পরিক অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমে এ বন্ধুত্ব আরো দৃঢ় হতে পারে।

এ সময় বাংলাদেশ ও স্পেনের সংসদীয় সম্পর্ক উন্নয়নে একত্রে কাজ করার দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন স্পীকার।

স্পিকার বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন একটি বৈশ্বিক সমস্যা। এই সংকট সমাধানে এবং এজেন্ডাসমূহ বাস্তবায়নে বিভিন্ন দেশের সংসদকে সম্মিলিতভাবে ভূমিকা রাখতে হবে।

রাষ্ট্রদূত ফ্রান্সিসকো দি অসিস বেনেতিজ সালাস জলবায়ু সংকট মোকাবিলায় গঠনমূলকভাবে সম্মিলিত প্রয়াস চালানোর বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *